উচ্চ রক্তচাপ নির্ণয়

উচ্চ রক্তচাপ নির্ণয়

আপনার উচ্চরক্তচাপ আছে কি না তা জানার একমাত্র উপায় হল রক্তচাপ (ঊচ্চ রক্তচাপ) পরীক্ষা করা। এটি আপনার ডাক্তার আপনার জন্য করে দিতে পারেন এবং আপনি ব্লাড প্রেসার মেশিনএর মাধ্যমে করতে পারেন।৪০ বছরের উপরের স্বাস্থ্যবান প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ৫ বছরে অন্তত একবার করে রক্তচাপ পরিমাপ করা উচিত।যদি আপনার উচ্চরক্ত চাপের ঝুকি থাকে তাহলে আপনার উচিত প্রতি বছরে অন্তত একবার করে রক্তচাপ পরিমাপ করে দেখা।

ডাক্তার দিয়ে রক্তচাপ চেক করানো :

ব্লাড প্রেসার মেশিন এমন  একটি যন্ত্র যার মধ্যে একটি স্টেথোস্কোপ, আর্ম কাফ, ডায়াল, পাম্প এবং একটি ভাল্ব থাকে।

কাফটি আপনার বাহুর চার পাশে লাগানো হবে এবং ততক্ষন ফুলানো হবে যতক্ষন না আপনার ওই স্থানের রক্ত চলাচল বন্ধ হয়। এর পর চাপ আসতে আসতে কমানো হয় আর স্টেথোস্কোপ দিয়ে আপনার পালস (স্পন্দন) দেখা হয়।

কাফ এর প্রেসার ছাড়ার সময় আপনার পালস (স্পন্দন)  কি রকম তা শোনা হয় এবং এর রিডিং একটি মারকারী স্কেলে নেয়া হয়, যা দ্বারা ব্লাড প্রেসার এর সঠিক মাত্রা নির্নয় করা যায়।

ব্লাড প্রেসার মাপার আগে আপনার ৫ মিনিটের বিশ্রাম নিতে হবে এবং প্রস্রাব করে মুত্র থলি খালি রাখতে হবে।

একটি নিখুত রিডিং পেতে হলে ব্লাড প্রেসার মাপার সময় আপনাকে বসে থাকতে হবে এবং কোন কথা বলা যাবে না।

ব্লাড প্রেসারের রিডিং

যদি একবার উচ্চরক্ত চাপ পাওয়া যায়, তার মানে এই না যে আপনার উচ্চরক্ত চাপ আছে। সারাদিনে রক্তচাপ অনেকবার উঠানামা করে।অনেক লোক মেডিকেল বা ক্লিনিকে গেলে অথবা ডাক্তারদের দেখলে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে , যার কারনেও রক্তচাপ বাড়তে পারে।এটাকে হোয়াইট কোট হাইপারটেনশান (ডাক্তারের সাদা এপ্রন দেখে যে উচ্চরক্তচাপ হয়) বলে।

তাই আপনাকে বাসার মধ্যে সারাদিনে কয়েকবার ব্লাড প্রেসার পরিমাপ করতে বলতে পারে। এ থেকে নিশ্চিত হতে পারবেন আপনার কি উচ্চরক্তচাপ সবসময় থাকে কিনা।

আপনার অন্যান কোন সমস্যা আছে কিনা যেমনঃ- কিডনী রোগ, যার কারনে ব্লাড প্রেসার বাড়ছে তা জানার জন্য আপনাকে কিছু রক্ত বা মুত্র পরীক্ষা করে দেখতে হতে পারে

বাসাতে পরীক্ষা করার যন্ত্র:

বহনযোগ্য ব্লাড প্রেসার মাপার যন্ত্র যা আপনার বাসাতে বা হাটাচলার সময় প্রেসার মাপে তা আপনার প্রেসার রেকর্ড করতে সাহায্য করতে পারে। তবে আপনি যদি ডিজিটাল ব্লাড প্রেসার এর মেশিন ব্যাবহার করেন তাহলে তিনটি ব্লাড প্রেসার এর বিডিং নিয়ে তার গড় রেকর্ড করা উচিত।

আপনি অনেক প্রকারের ব্লাড প্রেশার মেশিন ক্রয় করতে পারেন যা আপনার বাসায় বা বাসার বাহিরে গেলেও প্রেসার মেপে তার রিডিং জমা রাখবে।একটি নির্ভর যোগ্য প্রেসার মাপার মেশিন কেনা অনেক জরুরী যেটি আপনাকে নির্ভুল রিডিং দিবে।

আপনার প্রেসার এর ফলাফল সম্পর্কে জানুনঃ

রক্তচাপ মিলিমিটার অফ মার্কারী (পারদ) এর মাধ্যমে মাপা হয়, যা আবার দুই ধরনের হয়ে থাকে।যেমন ধরুন, আপনার ডাক্তার যদি বলে আপনার প্রেসার ১৪০/৯০ মিলিমিটার অফ মার্কারী, এটি মানে হল আপনার সিষ্টোলিক ব্লাড প্রেসার ১৪০ আর ডায়াষ্টোলিক প্রেসার ৯০ মিলিমিটার অফ মার্কারী।

সাধারনত আপনার রক্তচাপ ১২০/৮০ মিলিমিটার অফ মার্কারী এর নিচে থাকা উচিত। তবে ১৩০/৮০ মিলিমিটার অফ মার্কারী এর নিচেকে সাধারনত ঠিক আছে বলে ধরে নেয়া হয়।

যদি আপনার রক্তচাপ দিনের বিভিন্ন সময়ে ১৪০/৯০ মিলিমিটার অফ মার্কারী বা এর বেশি থাকে তাহলে আপনার উচ্চরক্ত চাপ আছে বলে ধরে নিতে হবে।

যদি আপনার কিডনী রোগ, ডায়াবেটিস অথবা এমন অন্য কোন সমস্যা থাকে যা আপনার হার্ট বা রক্তপ্রবাহের বাধা দান করে তাহলে আপনার প্রেসার ১৩০/৯০ মিলিমিটার অফ মার্কারী এর নিচে রাখার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা উচিত।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *