Ventilator for icu

করোনা আক্রান্ত বিশ্বের জন্য সুখবর বয়ে আনলো বিশ্বখ্যাত মেডট্রনিক! I Medistore

করোনা মহামারি মোকাবেলায় বিশ্বজুড়ে হাসপাতালগুলো যখন হিমশিম খাচ্ছে প্রতিনিয়ত, ঠিক তখনই সুখবর বয়ে আনলো বিশ্ববিখ্যাত মেডিকেল সরঞ্জামদি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান “মেডট্রনিক্স”

মরণঘাতী করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি আকারে। প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষের মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। কোনভাবেই যেন রাশ টানা যাচ্ছে না এ মহামারির। উন্নত বিশ্বের সকল প্রযুক্তিই হার মানছে যেন এই মহামারির কাছেই! আর এ সময়ে সবচেয়ে জরুরি বিষয় হয়ে উঠেছে ভেন্টিলেটর (কৃত্রিমভাবে স্বাস্থ্য প্রশ্বাস নেওয়ার যন্ত্র)। এই ভেন্টিলেটর তৈরির সকল সক্ষমতা আছে বিদেশী অনেক নামীদামী কোম্পানির। তবে কৌশল জানা নেই।

এই ভেন্টিলেটর তৈরির কৌশল জানলে হয়তো গিয়ে আসতো অনেক কোম্পানী। সাধারণত কোনো কোম্পানি এর প্যাটার্ন বা কৌশল উন্মুক্ত করে না। তবে এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম কেবল একজন! বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান ওমর ইশরাক। চিকিৎসা সরঞ্জাম তৈরির বিশ্বখ্যাত উৎপাদন প্রতিষ্ঠান মেডট্রনিক –এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ও চেয়ারম্যান ওমর ইশরাক এগিয়ে এসেছেন তার মেডিক্যাল যন্ত্রপাতি তৈরির প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে। উন্মুক্ত করে দিয়েছেন ভেন্টিলেটর তৈরির প্যাটার্ন।

 

Ventilator for icu

ভেন্টিলেটর সংকট বেশী-বিদেশী প্রায় সবখানেই, সব হাসপাতালেই। মেডিট্রনিকের এই সুখবরের পরেই, ঠিক সেই সময়ে বিশ্বখ্যাত মানের ভেন্টিলেটর তৈরি করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে সম্পৃক্ত হয়ে ওয়ালটন, মাইওয়ান, মিনিস্টারসহ কয়েকটি দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য উৎপাদক কোম্পানি এই ভেন্টিলেটর তৈরি করবে। একে একে সরকারি-বেসরকারি সংশ্লিষ্ট সব অংশীজন যার যার সক্ষমতা অনুযায়ী এই কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হচ্ছেন সবাই।

বিশ্বখ্যাত মেডিকেল প্রযুক্তিপণ্য উৎপাদক কোম্পানি মেডট্রোনিক ভেন্টিলেটর বানানোর সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যারের সোর্স কোড, ডিজাইনসহ পেটেন্ট তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের আরএনডি টিমকে দিয়েছে। ‘এখন একে একে বিশ্বখ্যাত টেসলা, ফোর্ড, জেনারেল ইলেক্ট্রনিক্স ও ভেন্টিলেটর বানাতে যাচ্ছে। সেখানে মেডট্রোনিক বাংলাদেশকে শুধু পেটেন্ট নয় তাদের গবেষক ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের দিয়ে সবরকম সহায়তার হাত বাড়িয়েছে’। মেডট্রোনিকের প্রধান নির্বাহী ও চেয়ারম্যান ওমর ইশরাক বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত হওয়ার বাড়তি এই সহযোগিতা মিলছে। ওমর ইশরাক ইন্টেলেরও চেয়ারম্যান।

মেডট্রোনিক আয়ারল্যান্ডের কোম্পানি, যার সদরদপ্তর আমেরিকার মেনিসোটায়। কোম্পানিটির মোট কর্মী ৯৮ হাজার এবং আয় ৩০ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার। বিশ্বের এই দু:সময়ে সব দেশের জন্য তাদের পেটেন্ট উম্মুক্ত করে দিয়েছে কোম্পানিটি। মেডট্রোনিকের পিবি৫৬০ মডেলের এই ভেন্টিলেটর দিয়ে সহজেই বয়ষ্ক ও শিশুদের সহজেই অক্সিজেন দেওয়া যাবে। এটি যেকোন পরিচর্যা কেন্দ্র বা বাসায় সহজেই ব্যবহারের উপযোগী।

blank

কী এই ভেন্টিলেটর ?

যেসব রোগীর করোনা সংক্রমণ খুবই মারাত্মক তাদের জীবনরক্ষায় ভেন্টিলেটর খুবই কার্যকর এক যন্ত্র। করোনাভাইরাসের প্রভাবে ফুসফুস অকার্যকর হয়ে গেলে শরীরের শ্বাস-প্রশ্বাস প্রক্রিয়া চালু রাখে যন্ত্রটি। এতে রোগটির সঙ্গে লড়াই করা যায়। কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় কয়েক ধরণের মেডিকেল ভেন্টিলেশন ব্যবহৃত হচ্ছে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তদের মধ্যে ৮০ শতাংশ ব্যক্তির কোনো মেডিকেল ট্রিটমেন্ট দরকার হচ্ছে না। তারা এমনিই সুস্থ হয়ে উঠছেন। কিন্তু প্রতি ৬ জনে ১ জনের অবস্থা আশংকাজনক পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। তখন প্রয়োজন হচ্ছে ভেন্টিলেটর।

Shop By Department